কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ জুন ২০১৭

রাঙ্গামাটিতে কৃষি সম্প্রসারণ পোর্টালের পাইলটিং কার্যক্রমের আঞ্চলিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত


প্রকাশন তারিখ : 2017-06-15

 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এক্সেস টু ইনফরমেশন (এ টু আই) প্রোগ্রাম ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রাঙ্গামাটি অঞ্চলের যৌথ উদ্যোগে কৃষি সম্প্রসারণ পোর্টালের পাইলটিং কার্যক্রমের আওতায় মাঠ পর্যায়ের অফিসারদের নিয়ে রাঙ্গামাটিস্থ কৃষি তথ্য সার্ভিসের আইটি ল্যাবে ২ দিন ব্যাপি আঞ্চলিক কর্মশালা আজ ১৪ জুন তারিখে সমাপ্ত হয়। গতকাল ১৩ই জুন ২০১৭ তারিখে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও আজকের সমাপনী অনুষ্ঠান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলার উপ পরিচালক কৃষিবিদ কৃষ্ণ প্রসাদ মল্লিকের সভাপতিতে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানদ্বয়ে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রাঙ্গামাটি অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ প্রনব ভট্টাচার্য্য। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার উপ পরিচালক কৃষিবিদ তরুন ভট্টাচার্য্য। কর্মশালায় মাস্টার ট্রেইনার হিসেবে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো: রিয়াজুর রহমান এবং মহালছড়ি উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ ওঙ্কার বিশ্বাস। কর্মশালায় রাঙ্গামাটি অঞ্চলের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিসিএস(কৃষি) ক্যাডারের কর্মকর্তাগন অংশগ্রহন করেন।

 

ডিএই রাঙ্গামাটি অঞ্চলের উপ পরিচালক কৃষিবিদ তপন কুমার পালের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিবিদ প্রনব ভট্টাচার্য্য বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ পোর্টালের পাইলটিং কার্যক্রমের আওতায় কৃষি সম্প্রসারণ পোর্টাল চালু হলে মাঠ পর্যায়ের অফিসারদের কাজের অভিজ্ঞতা বিনিময় করা খুবই সহজ হবে। এর ফলে মাঠ পর্যায়ে কৃষি প্রযুক্তি বিস্তার তথা সম্প্রসারণ কার্যক্রম বেগবান হবে যা রাঙ্গামাটি অঞ্চল তথা সমগ্র দেশের কৃষির উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখবে। তিনি কর্মশালায় অর্জিত অভিজ্ঞতা যথাযথভাবে বাস্তবায়নের জন্য অংশগ্রহনকারীদের প্রতি আহ্বান জানান। সভাপতির বক্তব্যে কৃষিবিদ কৃষ্ণ প্রসাদ মল্লিক বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের ক্ষেত্রে কৃষি সম্প্রসারণ পোর্টাল এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এর মাধ্যমে ডিএই-এর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা কর্মচারী এবং কৃষকদের মাঝে কৃষি তথ্য প্রযুক্তি বিস্তার এবং যোগাযোগ আরো দৃঢ় হবে।       


Share with :
Facebook Facebook