কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১২ অক্টোবর ২০১৭

কৃষিবান্ধব বর্তমান সরকার উৎপাদন অব্যাহত রাখতে কৃষি প্রণোদনা চালু করেছে : সিনিয়র সচিব, কৃষি মন্ত্রণালয়


প্রকাশন তারিখ : 2017-10-10

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব জনাব মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ্ বলেছেন, কৃষি বান্ধব বর্তমান সরকারের আমলে কৃষকদের প্রণোদনা দেয়া হচ্ছে, যেটি আগে দেয়া হতো না। প্রণোদনায় পাওয়া সার বীজ সঠিকভাবে প্রয়োগের মাধ্যমে উৎপাদনের ধারাকে অব্যাহত রাখতে কৃষকদের প্রতি আহ্বান জানান। এ সময় কৃষি উৎপাদনের কলাকৌশল উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তাদের নিকট থেকে জেনে নেয়ার প্রতি তিনি গুরুত্বারোপ করেন। তিনি প্রণোদনা প্রাপ্ত কৃষকের সঠিক তালিকা তৈরীর বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দেন।

 

সিনিয়র সচিব মহোদয় গত ৯ অক্টোবর বিকেলে যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদ মিলানায়তনে উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত খরিপ-২, রবি ও খরিপ-১/২০১৭-১৮ মৌসুমে সরিষা, ভূট্টা, বিটি বেগুন, তিল ও মুগ উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষে প্রণোদনা কমসূচীর বিনামীল্যে বীজ ও সার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। সিনিয়র সচিব বলেন, সরকার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিদের মাঝে প্রণোদনা দিচ্ছেন। এ সময় যদি কোন বড় কৃষকের নাম আসে, তিনি সেচ্ছায় তার নাম প্রত্যাহারের আহ্বান জানান। এ বিষয়ে সকল উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তাদের সার্বক্ষনিক কৃষকের পাশে মাঠে থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দেন। প্রণোদনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ নজমুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ মোঃ গোলাম মারুফ, ডিএই যশোর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ চন্ডীদাস কুন্ডু, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিহা বেগম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রমুখ। প্রণোদনা বিতরণ অনুষ্ঠানে মোট ২১৫ জন কৃষক/কৃষাণীকে সরিষা বীজ ও সার বিতরণ করা হয়। পরে সিনিয়র সচিব উপজেলার পানিসারা গ্রামের ফুল চাষি মোঃ ইসমাইলের জারবেরা ফুল মাঠ পরিদর্শন করেন। এ সময উপস্থিত ফুল চাষিদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, চায়না গোলাপের সাথে কলম করে যে গোলাপ উৎপাদিত হয় তাতে কাঁটা থাকায় চাষিরা কম মূল্য পান। কাঁটামুক্ত গোলাপ উৎপাদনের জন্য গবেষণার সাথে যোগাযোগের বিষয়ে ডিএই মহাপরিচালকের প্রতি আহ্বান জানান। সিনিয়র সচিব পরে এনএটিপি-২ প্রকল্পের সিআইজি গ্রুপ ও আইএফএমসি প্রকল্পের কৃষক/কৃষাণী গ্রুপের সাথে মত বিনিময়কালে চাষিদের ফুল চাষের ঋন প্রাপ্তি বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক ৪% হারে ঋণ সুবিধা পাওয়া ও বিভিন্ন কৃষক সংগঠনকে কিভাবে ব্যাংক থেকে জামানতবিহীন ঋন সুবিধা দেয়া যায় সে বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তকে নির্দেশনা প্রদান করেন।


 

 

 


Share with :
Facebook Facebook