কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭

বারি প্রযুক্তি হস্তান্তর কর্মশালা-২০১৭


প্রকাশন তারিখ : 2017-12-27

২৬ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে গাজীপুরস্থ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনে দুই দিনব্যাপি “বারি প্রযুক্তি হস্তান্তর কর্মশালা-২০১৭” শুরু হয়েছে।বিএআরআই কর্তৃক উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ ব্যবহারের মাধ্যমে কৃষকের আয় বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও দারিদ্র বিমোচনসহ গবেষণা ও সম্প্রসারণ; কর্মীদের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধি ইত্যাদি বিষয়গুলো কর্মশালায় অধিকতর গুরুত্ব পায়। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট  কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি করে খাদ্য ও পুষ্টি নিরাপত্তা অর্জন, কৃষকের আয় বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রকার দানা জাতীয় শস্য, কন্দাল, সবজি, ডাল, তৈলবীজ, ফল ও অন্যান্য ফসলের উপর গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এছাড়া গবেষণার পাশাপাশি উদ্ভাবিত প্রযুক্তি ও তথ্য হস্তান্তর কার্যক্রম পরিচালনা করা এ প্রতিষ্ঠানের অন্যতম দায়িত্ব।

 

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এ পর্যন্ত ২০৮ টিরও বেশি ফসলের ৫১২টি উচ্চ ফলনশীল (হাইব্রিডসহ), রোগ প্রতিরোধক্ষম ও বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশ প্রতিরোধী জাত এবং ৪৮২টি অন্যান্য প্রযুক্তিসহ এযাবৎ ৯০০টিরও বেশি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে।  সাম্প্রতিক সময়ে যে সকল প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে এগুলো দ্রুত কৃষক পর্যায়ে পৌঁছানোর লক্ষ্যে কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার, এনজিও কর্মী, বেসরকারী সীড কোম্পানী ও কৃষকদের প্রশিক্ষিত করে তোলাই এ কর্মশালার প্রধান উদ্দেশ্য। কর্মশালায় চারটি ক্যাটাগরিতে অধিবেশন সম্পন্ন হয়। এগুলো হলো- (১) উদ্ভাবিত ফসলের উন্নত জাত (২) ফসল ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি (৩) ফসলের পোকামাকড় ও রোগবালাই ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি (৪) ফার্ম মেশিনারী ও শস্য সংগ্রহত্তোর ব্যবস্থাপনা। প্রযুক্তি সম্পর্কিত উপস্থাপনা করেন যথাক্রমে ড. মো. লুৎফর রাহমান, পরিচালক (গবেষণা), ড. মো. নুরুল ইসলাম, মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (কৃষিতত্ত্ব বিভাগ), ড. সৈয়দ নুরুল আলম, মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (কৃষিতত্ত্ব বিভাগ), জনাব মো. শোয়েব হাসান, পরিচালক (পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন)।

 

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. আবুল কালাম আযাদ এর সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন এর চেয়ারম্যান জনাব মো. নাসিরুজ্জামান বলেন আমরা পুষ্টি পাই প্রাণিসম্পদ, ‘বারি’ উদ্ভাবিত বিভিন্ন শাকসবজি ও ফলমূল থেকে, তিনি আরো বলেন সেচকাজে ‘বারি’ যেসমস্ত প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে সেগুলো হস্তান্তরের জন্য বিএডিসির কর্মকর্তাদের আলাদাভাবে ওয়ার্কশপের ব্যবস্থা করে সেচ সম্পর্কিত তথ্য প্রযুক্তি ও কৌশলগুলো অবহিত করার অনুরোধ জানান।

 

কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল এর নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. ভাগ্য রাণী বণিক এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক জনাব মো. আব্দুল আজিজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএআরআই এর পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ) ড. পরিতোষ কুমার মালাকার। কর্মশালায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, নার্সভুক্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিএডিসি, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, এনজিও ও কৃষি সংশ্লিষ্ট অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা/বিজ্ঞানীবৃন্দ এবং কৃষক প্রতিনিধিসহ প্রায় ২০০জন অংশগ্রহণ করেন। 


Share with :

Facebook Facebook